Breaking News
Home / সারাদেশ / বঙ্গবন্ধু করেছেন শুরু, তার কন্যা করবেন শেষ, গৃহহীন থাকবেনা কেউ

বঙ্গবন্ধু করেছেন শুরু, তার কন্যা করবেন শেষ, গৃহহীন থাকবেনা কেউ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী তৎকালীন নোয়াখালী বর্তমান লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরপোড়াগাছা গ্রামে ভূমি ও গৃহহীন অসহায় ছিন্নমূল মানুষের পুনর্বাসন কার্যক্রম শুরু করেছিলেন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা বিরোধী চক্র বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করার পর দেশের গৃহ-ভূমিহীন পরিবার পুণর্বাসনের মতো জনবান্ধব ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রমগুলো স্থবির হয়ে পরে।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার দীর্ঘ ২১ বছর পর তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে সরকার গঠনের পর বঙ্গবন্ধুর জনবান্ধব ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রমগুলো পুনরায় শুরু করেন।

তাই তিনি ‘অর্šÍভূক্তিমূলক উন্নয়নের মডেল’ সামনে এনে পিছিয়ে পরা ছিন্নমূল মানুষকে মূলধারায় নিয়ে আসার বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেন।

তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৭ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা কক্সবাজার জেলার সেন্টমার্টিনে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহন করেন।

একই বছর সারাদেশের গৃহ ও ভূমিহীন মানুষদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে শুরু হয় “আশ্রয়ন প্রকল্প”। এরপর বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় আসলে স্থবির হয়ে পরে ছিন্নমূল বাসিন্দাদের মূলধারায় নিয়ে আসার কর্মসূচি।

পরবর্তীতে টানা তৃতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর ২০২১ সালে ‘মুজিববর্ষে একটি পরিবারও ভূমি ও গৃহহীন থাকবে না’ বলে ঘোষনা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেই লক্ষ্যে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর মাধ্যমে সারাদেশের ন্যায় বরিশালেও শুরু হয় ছিন্নমূল, দুঃস্থ, ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য বসতঘর নির্মাণের কাজ।

সড়কপথে জেলার প্রবেশদ্বার গৌরনদী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় প্রথমপর্যায়ে দুইশ’, দ্বিতীয় পর্যায়ে ২০টি ভূমিহীন পরিবার জমিসহ ঘর পেয়েছেন।

এছাড়াও তৃতীয় পর্যায়ে ৫২১টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য বসতঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এরমধ্যে ১৮৮টি ঘর ইতোমধ্যে উদ্বোধণ করা হয়েছে।

বাকি বসতঘরগুলোর নির্মাণ কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর বাকিঘরগুলো ভূমিহীন পরিবারের মাঝে হস্তান্তরের পর এ উপজেলাকে গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা করা হবে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আহসান হাবীব বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর মাধ্যমে ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য বসতঘর নির্মাণ কাজ সঠিকভাবে বাস্তবায়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সদস্যরা।

উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ অহিদুর রহমান বলেন, বসতঘর নির্মাণ কাজের গুনগতমান বজায় রাখার জন্য প্রতিনিয়ত নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করা হচ্ছে। ঘরগুলো মানসম্মতভাবে নির্মান করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপিন চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, উপজেলাকে গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা করার জন্য ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য বসতঘর নির্মাণ কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

সম্প্রতি বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান ও জেলা প্রশাসক মোঃ জসীম উদ্দীন হায়দার গৌরনদী উপজেলায় ভূমি-গৃহহীনদের জন্য নির্মাণাধীন বসতঘর পরিদর্শন করে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

About admin

Check Also

আগৈলঝাড়া ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার গৈলা ইউনিয়ন পরিষদে দিনব্যাপী হেড …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *