Home / সারাদেশ / আগৈলঝাড়ায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহন, চলছে ভোট গননা

আগৈলঝাড়ায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহন, চলছে ভোট গননা

আইন শৃংখলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তায় ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ভোটার উপস্থিতি কম হলেও ভোট কেন্দ্রের বাইরে ও মধ্যে কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই রবিবার (৯জুন) সকাল আটটা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল চারটা পর্যন্ত শান্তি পূর্ণভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভোট প্রয়োগের হার প্রায় ৪০ শতাংশ। ভোট গ্রহন শেষে এখন চলছে গননার কাজ। উপজেলার বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শণ করেছেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম বিপিএম, বরিশাল র‌্যাবের অধিনায়ক কাজী মো. জুবায়ের আহম্মেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারিহা তানজিনসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাগন।

তারা ভোট কেন্দ্র পরিদর্শণ শেষে সার্বিক বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহনকে ঐতিহাসিক ভোট গ্রহন হিসেবে অভিমত ব্যক্ত করেন।

সকাল দশটায় রাজিহার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে গিয়ে প্রিসাাইডিং অফিসার লস্কর আল মামুন জানান ওই কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ১৯৮৩। দুই ঘন্টায় সেখানে ভোট পরেছে ২০দশমিক ৭৮ভাগ।

ওই কেন্দ্রে আনারস প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত পরিদর্শন করে কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সকল প্রার্থীর এজেন্টদের সাথে কুর বিনিময় করেন।

বাকালহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রাণ কুমার ঘটক জানান, সকাল দশটায় ভোট প্রদান করেছে ৩৫৮জন। সেখানে মোট ভোটার ২৭৪৪জন।

একটি বুথে দুই ঘন্টায় ভোট প্রদান করেছে মাত্র ১৮জন। ওই বুথে প্রজাপতি মার্কার এজেন্ট পাওয়া যায়নি। তবে পিসাইডং অফিসার জানান, তার কাছে এজেন্ট এর কাগজ রয়েছে। হয়তো সে চলে গেছে।

কোদালধোয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রিসাইডিং অফিসার মো. শাহীন জানান, তার কেন্দ্রে ভোটার সংথ্যা ১৫৩৬জন। ভোট গ্রহনের প্রথম দুই ঘন্টায় ভোট পরেছে ১৯৫টি। যা শততকরা ১২ দশমিক ৭০ভাগ। ওই কেন্দ্রে গিয়ে কর্মকর্তা ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্য ছাড়া একজন ভোটারকেও দেখতে পাওয়া যায়নি মাঠে।

কর্মকর্তা অভিযোগ করে জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ভোট গ্রহনের জন্য তাকে কোন রকমের সহায়তা না করে উল্টো তাকে দিয়ে ভোট গ্রহনের করার জন্য ইলেকট্রিক ওয়ারিং এর কাজ পর্যন্ত করিয়েছেন।

প্রত্যন্ত এলাকার ভোট কেন্দ্র ফেনাবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রর প্রিসাইডিং অফিসার মাহমুদ হোসেন জানান তার কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ২৪১২জন। সকাল দশট পর্যন্ত ৪১০জনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। ভোট প্রয়োগের হার ১৭ভাগ। তবে ওই কেন্দ্র ভোট প্রদানোর জন্য নারী ও পুরুষ ভোটারদের একাধিক ধীর্ঘ লাইন দেখা যায়।

রবিবার দুপুরে উপজেলা সদরের ভেগাই হালদার পাবলিক একাডেমী ভোট কেন্দ্র পরিদর্শণ করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম। এসময় তার সাথে ছিলেন বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম বিপিএম, বরিশাল র‌্যাবের অধিনায়ক কাজী মো. জুবায়ের আহম্মেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারিহা তানজিনসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাগন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারিহা তানজিন জানান- শনিবার সকাল থেকে প্রিসাইডিং অফিসারদের তত্বাবধানে আইন শৃংখলা বাহিনীর সহায়তায় ভোট কেন্দ্রে গুলোতে ব্যালট বাক্সসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম পৌছানো হয়।

রবিবার খুব ভোরে উপজেলার নির্বাচন অফিস থেকে কড়া পাহারায় প্রিসাইডিং অফিসারদের ব্যালট পেপার প্রদান করা হয়। ওই ব্যালটে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।

আগৈলঝাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ১১জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করেছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত (আনারস) এবং যতীন্দ্র নাথ মিস্ত্রী (দোয়াত কলম)।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে রফিকুল ইসলাম তালুকদার (উড়োজাহাজ), মো. জসীম উদ্দিন সরদার (মাইক), মো. সবুজ আকন (টিউবওয়েল), সাহাবুদ্দিন মোল্লা (তালা) ও সঞ্জয় বাড়ৈ (চশমা)।

নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে মলিনা রানী রায় (প্রজাপতি), হাফিজা ইয়াসমিন (ফুটবল), পবিত্র রানী রায় (কলস) ও মনিকা সরকার (হাঁস)।

উপজেলায় পাঁচটি ইউনিয়নে ৬৭হাজার ৫শ ৫৮জন পুরুষ এবং ৬৬হাজার ৪শ ৭৫জন নারী ভোটারসহ মোট ভোটার সংখ্যা ১লাখ ৩৪হাজার ১৩৩জন। গুরুত্বপূর্ণ তালিকায় ছিল ৩৮টি ভোট কেন্দ্র।

উপজেলা কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বে থাকা উপজেলা সমাজসেবা অফিসার শুসান্ত বালা জানান, বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত উপজেলায় ৩৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। তবে তখনও ভোট কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি থাকায় তা বেড়ে ৪০ শতায়শ পর্যন্ত হতে পারে বলেও জানান তিনি।

ভোট কেন্দ্র এবং চলাচলের সড়রে সড়কে আইন শৃংখলা রক্ষায় দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত ছিলেন ১০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়াও প্রতি ভোট কেন্দ্রে ৮জন পুলিশ, ১৩জন আনসারসহ মোট ২১জন সদস্য দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি দুই প্লাটুন বিজিবি, দুই প্লাটুন র‌্যাব, এক প্লাটুন ব্যাটালিয়ান আনসার, পুলিশের ২০টি মোবাইল টিম, ৪টি স্ট্রাইকিং ফোর্সসহ সাদা পোশাকে সরকারের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন।

About admin

Check Also

আগৈলঝাড়ায় বর্নাঢ্য আয়োজনে রথযাত্রা উৎসব পালিত

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ব্যাপক উৎসাহ, উদ্দীপনা আর ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যর মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *